মানবিক বাংলাদেশ গঠনে #BeHumaneFirst

রবিবার, মে ২০, ২০১৮ ২:১৬ AM | বিভাগ : মুক্তচিন্তা


সেক্যুলার’ – ‘অসাম্প্রদায়িক’ ‘সেক্যুলারিজম’ – ‘অসাম্প্রদায়িকতা’, ‘ধর্ম নিরপেক্ষতা’ -এই শব্দগুলোর প্রতি ইচ্ছাকৃত ভাবে সামষ্ঠিক ঘৃণা তৈরির মিশনে নেমেছে একটি ‘ঘৃনাজীবী’ গোষ্ঠী। যেখানে ‘অসাম্প্রদায়িকতা’ / ‘ধর্ম নিরপেক্ষতা’র প্রকৃত অর্থ হচ্ছে সকল ধর্ম-মত-বিশ্বাসের মানুষের সম অধিকার নিয়ে সৌহার্দ্যপূর্ণ সহাবস্থান, সেখানে সেই ‘ঘৃনাজীবী’রা বোঝাতে চায় ‘ধর্ম নিরপেক্ষতা’ ‘অসাম্প্রদায়িকতা’ বা ‘সেক্যুলারিজম‘ মানেই ‘ধর্মহীনতা’ বা ‘ধর্ম বিদ্বেষ’। তাদের উদ্দেশ্যই হচ্ছে বাংলাদেশে ধর্মীয় সংখ্যাগুরু ধর্মভীরু ও ধর্মপ্রাণ সাধারণ মানুষকে ‘অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশে’র চেতনার বিরোধী করে তোলা।তারা চায়, সাধারণ সহজ সরল মানুষের ধর্মানুভূতিকে কাজে লাগিয়ে তাদের নিজেদের ‘অসৎ‘ উদ্দেশ্য চরিতার্থ করতে। দেশের মানুষ ‘ধর্ম নিরপেক্ষ, অসাম্প্রদায়িক’ হয়ে গেলেতো আর ‘ধর্মের‘ দোহাই তুলে ওরা তাদের ব্যবসা চালিয়ে যেতে পারবে না। তাই তারা চায় না সব ধর্ম/মত-বিশ্বাসের মানুষের মাঝে শান্তি, সৌহার্দ্য ও সম্প্রীতি বজায় থাকুক। তারা চায় না মানুষ ‘মানবিক হোক। এই জঘন্য ঘৃনাজীবী অমানুষদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধের দেয়াল গড়ে তুলতে হবে। এদেরকে রুখতে হবে। আর তাই এদের মিথ্যা প্রচারণার বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলতে Humane First Movement থেকে আমরা আবারো শুরু করতে যাচ্ছি বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বাড়ানোর লক্ষ্যে নেয়া আমাদের অনলাইন ক্যাম্পেইন #BeHumaneFirst।

এবারে আমরা পুরো বছরব্যাপী বিভিন্ন পর্বে এই ক্যাম্পেইন চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এবারে আমরা পুরো বছরব্যাপী বিভিন্ন পর্বে #BeHumaneFirst ক্যাম্পেইন চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম।

প্রথম পর্বের ক্যাম্পেইন চলেছে ১৫ ই জানুয়ারি থেকে ২৬ শে মার্চ পর্যন্ত।

১৫ ই মে থেকে শুরু হয়েছে দ্বিতীয় পর্বের ক্যাম্পেইন। চলবে ১৫ই জুলাই পর্যন্ত।

ক্যাম্পাইনের লেখা যত বেশি সম্ভব মানুষের কাছে পৌঁছে দেয়ার জন্য সহযোগী অনলাইন পোর্টাল হিসেবে এবারেও পাশে আছে  www.nari.news, womenchapter.com, Natunsomoy.com, Amarkolom.com, Jagoroniya.com, Banglainitiator.com, CBNA24.com, bdshongbad24.com এবং feminism.com। তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা। নতুন আর কোনো অনলাইন পোর্টাল যদি যোগ দিতে চান দয়া করে জানাবেন।

অনলাইন এ মুক্তিযুদ্ধ ও অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের স্বপক্ষে বিভিন্ন পেইজ চালান এমন কেউ যদি এই ক্যাম্পেইন এ সহযোগী হতে চান আমাকে জানাবেন প্লিজ। সবার সম্মিলিত অংশগ্রহণেই কেবল এই ক্যাম্পেইন টিকে আমরা সফল করতে পারবো।

অনেকেই জানতে চাইছেন কিভাবে সোশ্যাল মিডিয়া ক্যাম্পেইন #BeHumaneFirst এ অংশ নিতে পারবেন। তাদের জন্য বলছি, মানুষে-মানুষে সম্প্রীতি ও মানবিকতায় বিশ্বাসী সবাই এই ক্যাম্পেইনে যোগ দিতে পারবেন।

এ জন্য ক্যাম্পাইনের যেকোন কর্মসূচিগুলোতে অংশ নিলেই হবে।

এবারের ক্যাম্পেইন এ থাকছেঃ

১) বিশিষ্ট জনদের লেখা ও অভিজ্ঞতা শেয়ার করা। এই পর্বের থিম- “সম্প্রীতির সমাজ গঠনে সংযম ও সহিংষ্ণুতা কেন জরুরি”

আপনারা যে কেউ লেখা পাঠাতে পারবেন। আমরা সবার লেখা আমাদের গ্রুপ ও পেইজ থেকে এবং সহযোগী অনলাইন পোর্টাল ও পেইজ গুলো থেকে শেয়ার করবো।

২) গত বারের মত ফটো ক্যাম্পেইন। যে কেউ #BeHumaneFirst হ্যাশট্যাগ সহ তাদের মন পছন্দের মানবিক কোন কথা লিখে সেটা হাতে নিয়ে ছবি তুলে নিজেদের ওয়াল এ শেয়ার করতে এবং আমাদের কাছে পাঠাতে পারেন। আমরা তা শেয়ার করবো। আগের বারের ফটো ক্যাম্পেইনের লিংক

•https://www.facebook.com/ajanta.dream/media_set?set=a.10155815669290056.1073741987.528550055&type=3

৩) আপনাদের সামর্থ্য অনুযায়ী যেকোন সৃজনশীল মাধ্যমের মাধ্যমে আপনারা ক্যাম্পেইনে যোগ দিতে পারেন। গায়কেরা মানবিকতা ও সম্প্রীতি মূলক গান গেয়ে পাঠাতে পারেন, আবৃত্তিকারেরা কবিতা আবৃত্তি করে পাঠাতে পারেন, আঁকিয়েরা আঁকতে পারেন,লিখিয়েরা লিখতে পারেন। আমরা তা শেয়ার করবো।

৪) এবারের পর্বের নতুন যোগ হচ্ছে ভিডিও ক্যাম্পেইন।
“মানবিকতা ও সম্প্রীতি’র কথা” থিম এর উপর আপনাদের মানবিক বক্তব্য ছোট ছোট ভিডিও রেকর্ড করে আমাদের পাঠাতে পারবেন। আবার #BeHumaneFirst হ্যাশট্যাগ দিয়ে লাইভ ভিডিও ও করতে পারেন। আমরা শেয়ার করবো।

এ ছাড়াও ক্যাম্পেইন টি ছড়িয়ে দেয়ার বিষয়ে যেকোন সৃজনশীল আইডিয়া, মতামত ও উপদেশ থাকলে অবশ্যই আমাদের জানাবেন।

ক্যাম্পাইনের শুরু থেকেই যে মানবিক মানুষেরা বিভিন্নভাবে পাশে আছেন তাদের সমর্থন ও সহযোগিতা ছাড়া আমরা তৃতীয় পর্ব পর্যন্ত পৌঁছাতে পারতাম না।

উদ্যোগটি ছোট হলেও লক্ষ্য আমাদের সমুদ্রসম।
তাই আপনাদের সকলের অংশগ্রন ও সহযোগিতা ছাড়া সেই লক্ষ্যে পৌঁছানো সম্ভব হবে না।

যোগাযোগঃ Humane First Movement পেইজ
ইমেইল: info@behumanefirst.com

আশা করি সকল মানবিক মানুষকে পাশে পাবো।

মানবিকতার জয় হোক।


  • ৪৫৪ বার পড়া হয়েছে

পূর্ববর্তী লেখা পরবর্তী লেখা

বিঃদ্রঃ নারী'তে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার বিষয়বস্তু, ক্রিয়া-প্রতিক্রিয়া ও মন্তব্যসমুহ সম্পূর্ণ লেখকের নিজস্ব। প্রকাশিত সকল লেখার বিষয়বস্তু ও মতামত নারী'র সম্পাদকীয় নীতির সাথে সম্পুর্নভাবে মিলে যাবে এমন নয়। লেখকের কোনো লেখার বিষয়বস্তু বা বক্তব্যের যথার্থতার আইনগত বা অন্যকোনো দায় নারী কর্তৃপক্ষ বহন করতে বাধ্য নয়। নারীতে প্রকাশিত কোনো লেখা বিনা অনুমতিতে অন্য কোথাও প্রকাশ কপিরাইট আইনের লংঘন বলে গণ্য হবে।


মন্তব্য টি

লেখক পরিচিতি

অজন্তা দেব রায়

মানবাধিকার কর্মী।

ফেসবুকে আমরা